বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০

১৪ কার্তিক ১৪২৭

ই-পেপার

স্পোর্টস ডেস্ক

সেপ্টেম্বর ২৫,২০২০, ১২:০২

সেপ্টেম্বর ২৫,২০২০, ১২:০২

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের শ্রীলংকা সফর স্থগিত

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের শ্রীলংকা সফর স্থগিত বলে খবর প্রকাশ করেছে শ্রীলংকান কিছু গণমাধ্যম।

এদিকে এই সফরের জন্য গত ১৯ জুলাই থেকে ব্যক্তিগত অনুশীলন শুরু করেছে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। ২৭ জন ক্রিকেটারের জন্য সরকারী আদেশ (জিও) নিয়ে জৈব সুরক্ষায় তাদের স্কিল ক্যাম্প শুরু হয়েছে গত ২০ সেপ্টেম্বর থেকে। শুধু তাই নয়, ভেট্টরি ছাড়া কোচিং স্টাফও ক্রিকেটারদের অনুশীলনে ছিলেন। শ্রীলংকা সফরকে সামনে রেখে জৈব সুরক্ষায় অনুশীলনের জন্য সফরপূর্ব এক সপ্তাহ ধরে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা কোয়ারেন্টিনে ছিলেন হোটেল সোনারগাঁয়ে।

এছাড়া ৩ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের শ্রীলংকার উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর। তবে এসব প্রস্তুতি এখন বৃথা গেছে।

শ্রীলংকা সফরের শুরুতে কোয়ারেন্টিন শর্ত শিথিলে বিসিবির প্রস্তাবনা বিবেচনা করেনি বিশ্বের অন্যতম করোনামুক্ত দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রানালয়। কোডিভ-১৯ ট্যাস্কফোর্সের বিধি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের শ্রীলংকা সফরে ভঙ্গ করা যাবে না বলে শ্রীলংকা ক্রিকেটকে স্পষ্ঠভাষায় জানিয়ে দিয়েছে।

পেপার ডটকমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন শ্রীলংকা ক্রিকেটের সিইও অ্যাশলে ডি সিলভা-কোভিড ট্যাস্কফোর্সের কাছ থেকে যে ফিডব্যাক পেয়েছি, তাতে ট্যাস্কফোর্স বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ব্যাপারটি নিয়ে বসেছে।

তবে ট্যাস্কফোর্সের পক্ষ থেকে যে গাইডলাইন দেয়া হয়েছে, তারা যদি মেনে না চলতে না প্রস্তুত থাকে তাহলে আমরা ট্যুর পরিত্যক্ত করতে বাধ্য হবো। সেক্ষেত্রে সফরটি পুনরায় আগামী বছরে একই চক্রে অনুষ্ঠিত হবে।

শ্রীলংকার কর্তৃপক্ষ, পররাষ্ট্র মন্ত্রানালয় খুবই সহযোগিতার মনোভাব প্রদর্শন করেছে। যে ই আসুক না কেন, তাদেরকে স্বাস্থ্য মন্ত্রানালয়ের গাইডলাইন মেনে চলতে হবে। একই শর্ত লংকা প্রিমিয়ার লিগের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য হবে।

তবে করোনাকালে এই সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পর্যাপ্ত প্রস্তুতি না থাকায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড( বিসিবি) চেয়েছিল শ্রীলংকা সফরকালে ক্রিকেট দলের অনুশীলনে সহযোগিতা করার জন্য জাতীয় দলের সঙ্গে হাই পারফরমেন্স স্কোয়াডের সফর।

বিসিবির এই প্রস্তাব শুরুতেই প্রত্যাখান করেছে শ্রীলংকা ক্রিকেট। শ্রীলংকা সফরে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের বহর কোনোভাবেই ৩০ জনের বেশি হতে পারবে না এবং বাংলাদেশ দলকে শ্রীলংকা পা রেখে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে, কোয়ারেন্টিন মেয়াদকালে টিম হোটেলের বাইরে বেরুতে পারবে না ক্রিকেট দলের কেউ- এমন সব কঠোর শর্ত জুড়ে দিয়েছিল শ্রীলংকা ক্রিকেট।

শ্রীলংকার স্বাস্থ্য মন্ত্রানালয়ের এই নির্দেশিকা বিসিবিতে পাঠিয়েও দিয়েছে শ্রীলংকা ক্রিকেট। এই শর্ত মেনে নিতে চায়নি বিসিবি। কোয়ারেন্টিনের মেয়াদ শিথিল না করলে এবং কোয়ারেন্টিনকালে অনুশীলনের সুযোগ না দিলে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল শ্রীলংকা সফর করবে না বলেও গণমাধ্যমকে গত ১৪ সেপ্টেম্বর জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এমপি।

এদিকে বিসিবির এই অবস্থান জেনে কোভিড-১৯ ট্যাস্কফোর্সের সঙ্গে আলোচনায় বসে শর্ত শিথিলের অনুরোধ করেছেন শ্রীলংকার ক্রীড়ামন্ত্রী। তার এই অনুরোধকে গুরুত্ব দিয়ে শ্রীলংকা ক্রিকেট কোভিড-১৯ ট্যাস্কফোর্সের সাথে বসেছে। তবে কোভিড-১৯ ট্যাস্কফোর্স তাদের অবস্থান থেকে একচুলও নড়েনি।

করোনাভাইরাসকালীন সময়ে বিদেশি পর্যটকদের ক্ষেত্রে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনের বাইরে যেতে পারবে না তারা, তা জানিয়ে দিয়েছে শ্রীলংকা ক্রিকেটকে।

সারা বিশ্বে করোনা মহামারী স্পর্শ করেনি শ্রীলংকায়। এই দ্বীপে প্রানহানি মাত্র ১৩ জন। সেকারণেই পর্যটকদের ক্ষেত্রে বেশি সতর্ক তারা।

এদিকে গত আগস্টে লংকা প্রিমিয়ার লিগ আয়োজন করতে পারেনি স্বাস্থ্য মন্ত্রানালয়ের নির্দেশিকার বাইরে বিদেশি ক্রিকেটারদের জন্য শর্ত শিথিলের প্রস্তাব শ্রীলংকা ক্রিকেট প্রত্যাখ্যান করায়।

করোনাকালীন সময়ে ৬ মাস ক্রিকেটের বাইরে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। ৪টি দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ স্থগিত হবার পর একটি সফরের যে সম্ভাবনা দেখা দিয়েছিল, সেটিও হয়ে গেল স্থগিত! বছরের বাকিটা সময় যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে কাটাতে হবে টাইগারদের।

আমারসংবাদ/জেডআই