সোমবার ০১ জুন ২০২০

১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ই-পেপার

জানুয়ারি ৩০,২০১৫, ০৫:৩০

জানুয়ারি ০৪,২০২০, ১০:৪০

ভারতকে বিদায় করে ফাইনালে ইংল্যান্ড


ত্রিদেশীয় সিরিজের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে হেরে আসর থেকে বিদায় নিলো ভারত। পার্থে আগে ব্যাট করে তেমন বড় সংগ্রহ করতে পারেনি ভারত। টস হেরে তারা ২০০ রান করে ৪৮.১ ওভারে অল আউট হয়। এরপর ইংল্যান্ডের শিবিরে আতঙ্ক ছড়িয়ে দিয়েও শেষ পযর্ডন্ত লো স্কোরিং এই ম্যাচ জিততে পারেনি ভারত। তাদের ৩ উইকেটে হারিয়ে ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার সামনে গিয়ে দাঁড়ালো ইংল্যান্ড। ২০১ রানের টার্গেটে তারা পৌছেছে টেলর ও বাটলারের বীরোচিত ব্যাটিংয়ে। ৪৬.৪ ওভারে জয় তুলে নিয়ে ফাইনালে ওঠার আনন্দে মেতেছে তারা। আসরে একটি ম্যাচও জিততে পারেনি ভারত।
ভারতের ২০০ রানের জবাব দিতে গিয়ে ভালো বিপদেই পড়েছিল ইংল্যান্ড। স্টুয়ার্ট বিনি ও মোহিত শর্মা মিলে দারুণ আক্রমণ চালান। তাতে ৬৬ রানেই ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে ইংলিশরা। দুই ওপেনার বেল (১০) ও মঈন (১৭) ৪০ রানের মধ্যে বিদায় নেন। এরপর আরো ২৬ রান উঠতেই ড্রেসিং রুমে ফেরেন রুট (৩), অধিনায়ক মরগ্যান (২) ও বোপারা (৪)। অল্প রানের মধ্যে ইংলিশদের টপ ও মিডল অর্ডারে ধ্বস নামিয়ে দেবার পর ম্যাচেই ছিলো ভারত। কিন্তু ষষ্ঠ উইকেটে ১২৫ রানের জুটি গড়ে ওঠে টেলর ও বাটলারের মধ্যে। এই জুটি ধীরে কিন্তু সতর্কতার সাথে দলকে নিয়ে গেছেন জয়ের কাছাকাছি। টেলর ৮২ ও বাটলার ৬৭ রান করে আউট হন ম্যাচের শেষ পর্যায়ে। মূলত এই দুইয়ের ব্যাটিংই ভারতের হাত থেকে ম্যাচটা বের করে নিয়ে গেছে ইংলিশরা। ম্যাচ শেষে নিশ্চয়ই আরো কিছু রানের আক্ষেপ রয়ে গেছে ভারতের মনে।
তার আগে টস হেরে ব্যাট করতে নামে ভারত। গ্রুপ পর্বের এই শেষ ম্যাচে তাদের ওপেনিং ব্যাটসম্যানরা ৮৩ রান এনে দেন। শিখর ধাওয়ান ৩৮ রান করে ফিরে যান। তবে তার পার্টনার আজিঙ্কা রাহানে টিকে ছিলেন। তিনি পেয়ে যান ফিফটি। কিন্তু জুটি গড়ার জন্য পার্টনার পাচ্ছিলেন না রাহানে। রাইনাকে নিয়ে ১০৭ রান পর্যন্ত যান রাহানে। এরপর শুরু হয় ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের ড্রেসিং রুমে ফেরার মিছিল। একেকজন এসেছেন। আর কিছুক্ষণ পর ইংল্যান্ডের বোলারদের কাছে হার মেনে ড্রেসিংরুমে ফিরেছেন। দলীয় সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেছেন রাহানে। ওকস, ব্রড ও মঈন আলী ২টি করে উইকেট নেন। ফিন নেন ৩ উইকেট। আর দুই ওপেনারের পর একমাত্র শেষ ব্যাটসম্যান শামি (২৫) ছাড়া কেউই ২০ রানের ঘরেও যেতে পারেননি। আর দুই অংকের রানের মধ্যে আছে রাইডু (১২) ও অধিনায়ক ধোনির (১৭) নাম। ভয়াবহ ব্যাটিং ব্যর্থতার সাথে ভারতের ফাইনালে খেলার স্বপ্নও ফিকে হয়ে যায়।