সোমবার ৩০ মার্চ ২০২০

১৬ চৈত্র ১৪২৬

ই-পেপার

বশির হোসেন খান

প্রিন্ট সংস্করণ

মার্চ ২১,২০২০, ০১:১৮

মার্চ ২১,২০২০, ০১:১৮

করোনা সতর্কতায় পুলিশ

করোনা ভাইরাসে মৃত্যুর মিছিলে যুক্ত হলো বাংলাদেশের নাম। মৃত্যুর এই সংবাদে ভর করেছে করোনা ভাইরাস ভীতিতে। চারদিকে আতঙ্ক, উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা আরো বেড়েছে।

চলাফেরায় আতঙ্ক— কে কখন, কিভাবে আক্রান্ত হবে এ নিয়ে। পুলিশ নানা সতর্কতা জারি করেছে। মাঠ নেমেছে একদল পুলিশ। তারা বাস স্টপেজ, লঞ্চ টার্মিনাল ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে নানা পদক্ষেপ নিয়েছে।

ব্যবহারের জন্য হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মুখে মাস্ক ব্যবহারে বাধ্য করছে। আবার রেল স্টেশন, বাস টার্মিনাল, লঞ্চ টার্মিনালগুলোতে বেসিন বসিয়ে যাত্রীদের সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে দিচ্ছে।

এতে আগ্রহ বাড়ছে নগরবাসীর। গতকাল রাজধানীর মহাখালি, গাবতলি, সায়েদাবাদ, কমলাপুর রেল স্টেশন, শাহাজালাল আন্তজাতিক বিমানবন্দর এলাকায় ঘরে দেখা গেছে এমন চিত্র। আবার কাউকে ফ্রি মাস্ক দেয়া হচ্ছে।

উত্তারা জোনে এডিসি হাফিজুর রহমান বলেন, পুলিশ সদর দপ্তরের নির্দেশ অনুযায়ী পরিবহন যাত্রীদের ডেকে এই হাত ধোয়ায় উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। প্রতিটি মানুষের সচেতনতা জরুরি। সচেতনতা ছাড়া এই ভাইরাস দূর করা কঠিন। পুলিশের পাশাপাশি সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

এদিকে বরিশালগামী লঞ্চ মালিকদের ব্যক্তি উদ্যোগে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বিশেষ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ব্যবহার করা হচ্ছে জীবাণুনাশক স্প্রে। প্রত্যেক যাত্রীকে মাস্ক ব্যবহারের বাধ্য করা হচ্ছে।

কেবিনের প্রবেশ করার আগে তাদের শরীরের স্প্রে করা হচ্ছে। মাপা হচ্ছে তাপমাত্রাও। যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে স্টাফদের ব্যবহার করছেন সুরক্ষা পোশাক। এমকি হ্যান্ড গ্লাভস ও মাথায় সুরক্ষা টুপি ব্যবহার করা হচ্ছে।

এদিকে পুলিশ সদর দপ্তরের বিশেষ নির্দেশনা রয়েছে— পুলিশ সদস্যদের মুখে মাস্ক ও প্লাস্টিকের অ্যাপ্রোন ব্যবহার করতে হবে। ডিউটি ছাড়া বাইরে বের না হওয়ার যাবে না। পুলিশ স্টেশন ছাড়াও প্রতিটি ব্যারাক ও মেসে প্রবেশের আগে হ্যান্ড স্ক্যানার দিয়ে পরীক্ষা করতে হবে। সচেতন ও শর্তকতা অবলম্বন করুন।

পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি মিডিয়া মো. সোহেল রানা বলেন, করোনা ভাইরাস জন্য পুলিশ বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে। থানা ও পুলিশ সদর দপ্তরে দর্শনার্থী প্রবেশ করলে সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স হাসপাতালসহ দেশের সব পুলিশ হাসপাতালে আলাদা সেল খোলা হয়েছে।

ডিএমপির ডিসি মিডিয়া মাসুদুর রহমান বলেন, নানা ধরনের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এতে করে পুলিশ সদস্যরা কাজ করছেন। এ ছাড়া পুলিশের মধ্যে করোনা প্রতিরোধে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। বিশেষ করে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করছে পলিশ।

সুন্দরবন লঞ্চের চেয়ারম্যান আলহাজ সাইদুর রহমান রিন্টু বলেন, করোনা প্রতিরোধে বরিশালগামী লঞ্চে শর্তকতামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ নানা উপকরণ ব্যবহার করা হচ্ছে। যাত্রীদের জন্য মাস্ক ফ্রি দেয়া হচ্ছে। যাত্রীর সচেতন হওয়া অনুরোধ করেন তিনি।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ বলেন, বাসের যাত্রীদের জন্য মহাখালি, সায়েদাবাদ, গাবতলি বাসটার্মিনালের দূরপাল্লার রুটের যাত্রীদের স্প্রে করে বাসে উঠানো হচ্ছে। এমকি গাড়িতে একাধিকবার স্প্রে করা হচ্ছে। হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করানো হচ্ছে।

আমারসংবাদ/এসটিএমএ