বুধবার ১৫ জুলাই ২০২০

৩০ আষাঢ় ১৪২৭

ই-পেপার

তানীম ইবনে আলী

জুন ২৬,২০২০, ০৮:০২

জুন ২৬,২০২০, ০৯:২৫

অবসর কাটুক স্রষ্টার সান্নিধ্যে

বিশ্ব এখন করোনা নামক মহামারী দ্বারা আক্রান্ত। আমাদের স্বাভাবিক জীবন পরিচালনায় করোনা এক বিশাল বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। হাতেগোনা কিছু সরকারি, বেসরকারি এবং ব্যবসায়িক কার্যক্রম ছাড়া বাদবাকি সবকিছুই প্রায় অচল হয়ে পড়েছে। লকডাউনের মতো একঘেয়েমি পরিস্থিতির মধ্য দিয়েই অধিকাংশ মানুষের দিনাতিপাত ঘটছে। আর এই অলস সময় কে অতিবাহিত করতে অনেকেই নানা পন্থা অবলম্বন করছেন।

আমরা যারা মুসলিম এবং যারা আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনে সচেষ্ট থাকতে চাই তাদের জন্য এই অলস সময়টাই হতে পারে 'শাপেবর'। বৈষয়িক উন্নতির পিছনে ছুটতে ছুটতে আমরা এমনভাবেই ব্যতিব্যস্ত হয়ে গিয়েছিলাম যেন এ জগতেই আমাদের চিরদিনের আবাস হবে। তাই মহান আল্লাহর সাথে নিজেদের সম্পর্ক বৃদ্ধির এক সুবর্ণ সুযোগ এই করোনাকালীন সময়। সহজ এবং কার্যকর কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করলেই আমরা আমাদের রবের সাথে সম্পর্ক সুসংহত করতে পারবো ইনশা আল্লাহ।

তাওবা
তাওবা শব্দের অর্থ প্রত্যাবর্তন করা, ফিরে আসা। শরিয়ত নির্দেশিত পন্থা অনুসরণ না করে আজ অবধি যে সমস্ত অবাধ্যতা আমরা করেছি তার জন্য যথাযথভাবে অনুতপ্ত হয়ে পুনরায় এ সমস্ত অবাধ্যতার পুনরাবৃত্তি না ঘটানোর জন্য দৃঢ় সংকল্প করতে হবে।

আল্লাহ বলেন, যারা মন্দ কাজ করে, তারপর তাওবা করে নেয় এবং ঈমান আনে,তবে নিশ্চয়ই তোমার প্রতিপালক তাওবার পর অবশ্য ক্ষমাকারী করুণাময়। (সূরা আল-আ'রাফঃ১৫৩)

কুরআন
আমরা আমাদের জীবনকে কিভাবে পরিচালিত করবো কুরআন নাযিলের মাধ্যমে আল্লাহ তা সুস্পষ্ট করেছেন। কিন্তু পরিতাপের বিষয় হলো আমরা অনেকেই সঠিকভাবে কুরআন পড়তে পারি না। আর যারাই পারতাম চর্চা না থাকার কারণে তাও ভুলে বসেছি। তাই এই সময়টাকে কুরআন সহীহ করে শেখার কাজে ব্যয় করাই শ্রেয়। যারা সহীহ করে পড়তে পারি তারা যেন অবশ্যই অনুবাদসহ পড়ি।

কুরআনের ব্যাপারে আল্লাহ বলেন, এটা মানুষের জন্যে সুস্পষ্ট বর্ণনা এবং আল্লাহভীরুদের জন্য পথপ্রদর্শক ও উপদেশ। (সূরা আলে ইমরানঃ১৩৮)

সালাত
সালাত আদায়ের মাধ্যমে আমরা আল্লাহর সবচেয়ে নিকটবর্তী হতে পারি। তবে আমাদের মাঝে অনেকেই সালাতের প্রকৃত স্বাদটুকু পাই না। তার অন্যতম কারণ হলো সালাতে তাড়াহুড়ো আর পঠিত সূরা সমূহের অর্থ না বুঝা । তাই সালাতে সাধারণত যে সমস্ত সূরা পাঠ করবো তার অর্থ বুঝে পাঠ করার চেষ্টা করবো এবং ধীরস্থির ভাবে আদায় করবো।

মহান আল্লাহ বলেন, মুমিনগণ সফলকাম হয়েছে। যারা নিজেদের সালাতে বিনয়-নম্র। (সূরা আল মু'মিনূনঃ১-২)

যিকর
যিকর অর্থ স্মরণ করা বা মনে করা। আমাদের সমাজের অধিকাংশ মানুষ নানাবিধ মানসিক অশান্তির মাঝে বসবাস করছে। আর এই অশান্ত মন শান্ত হয় আল্লাহর যথাযথ স্মরণে।

মহান আল্লাহ বলেন, জেনে রাখো, আল্লাহর যিকর দ্বারাই অন্তর সমূহ প্রশান্তি লাভ করে। (সূরা রা'দঃ২৮)।

বর্তমানে প্লে স্টোরে রাসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর শিখানো মাসনূন যিকরসমূহ পাওয়া যায়।

ইসলামি সাহিত্য
এই অবসর সময় কে আমরা আমাদের প্রয়োজন ও জানার চাহিদা অনুযায়ী ইসলামি সাহিত্য অধ্যয়নে অতিবাহিত করতে পারি। বর্তমানে বিষয়ভিত্তিক প্রচুর অথেনটিক বই অনলাইনে পাওয়া যায়। বই কিনে কেউ দেউলিয়া হয় না আমরা এটি সবাই জানি। তাই নিজে পড়ি আর অন্যকে বই উপহার দিতে পারি।

ইসলামিক আলোচনা
আমাদের এই অলস সময় অধিকাংশ সময় সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যয় হয়ে থাকে। আর আমরা অনেকেই অডিও ও ভিডিও লেকচার শুনতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি। তাই নিজের পছন্দ মাফিক বক্তার বক্তব্য শুনা যেতে পারে। তবে সেক্ষেত্রে অবশ্যই বক্তার আকিদাগত ব্যাপারটি খেয়াল রাখতে হবে।

পরিশেষে একথা বলতে পারি যে, এ ভয়ংকর মহামারীর অবসান ঘটবে ইনশা আল্লাহ। তবে যে সময়গুলো অহেতুক নষ্ট করছি তা আর ফিরে পাব না। ঠিক তেমনিভাবেই আমাদের জীবনের প্রদীপও এক সময় নিভে যাবে এবং আমরা অনন্ত পথের দিকে অগ্রসর হবো। আর সঠিক পথের পাথেয় আমাদের এই দুনিয়ার স্বল্প সময়ের মাঝেই সংগ্রহ করতে হবে। তাই আমাদের আল্লাহর কাছে জবাবদিহিতার কথা মাথায় রেখে এই অবসর সময়কেই নাজাতের উসিলা হিসেবে গ্রহন করতে হবে।

লেখক: শিক্ষার্থী, তামিরুল মিল্লাত কামিল মাদ্রাসা

আমারসংবাদ/কেএস