শনিবার ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

১০ ফাল্গুন ১৪২৬

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেব্রুয়ারি ১৩,২০২০, ০৭:১১

ফেব্রুয়ারি ১৩,২০২০, ০১:১১

ড. কামালের কড়া সমালোচনা করলেন নাসিম

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

তিনি বলেছেন, ড. কামাল হোসেন তো দাঁড়াতেই পারেন না, লাথি মারবেন কী করে।

বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার কারাবন্দির দুই বছর পূর্তির দিন তার মুক্তি দাবিতে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন ড. কামাল হোসেন। ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে আয়োজিত ওই আলোচনাসভায় ড. কামাল সরকারকে স্বেচ্ছায় বিদায় নিতে বলেন।

নতুবা লাথি মেরে জনগণ সরকারকে বিদায় করবে বলেও মন্তব্য করেন। তার এই মন্তব্য তোলপাড় সৃষ্টি করেছে রাজনৈতিক অঙ্গনে।

দুইদিন আগে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ড. কামালের সমালোচনা করে বলেন, তিনি রাস্তার ভাষায় কথা বলেছেন।

বুধবার সংসদে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, উনি (ড. কামাল) তো নিজেই দাঁড়াতে পারেন না, কীভাবে লাথি মেরে সরকার ফেলে দেবেন। ওনাকে আমরা অনেক শ্রদ্ধা করতাম, আওয়ামী লীগ ওনাকে প্রেসিডেন্ট পদে ভোট করার সুযোগ দিয়েছিল।

কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরে উনি ভাড়া খাটার ব্যবসা করছেন। তাই ওনাকে আর কেউ শ্রদ্ধা করেন না। জনগণ আর ওনার কথা মানে না। উনি যথেষ্ট খারাপ ভাষায় কথা বলেছেন। একেবারে বাজে ভাষায়, এটি কোনো ভদ্রলোক বলে না।

বিএনপির এমপিদের সমালোচনা করে নাসিম বলেন, সংসদে বিএনপির বন্ধুরা অনেক সুন্দর সুন্দর কথা বলেন উল্লেখ করে নাসিম বলেন, এরা বাইরে এক রকম আর সংসদে আরেক রকম। বাইরে এদের অন্যরকম চেহারা। আমার সন্দেহ হয়, এদের সঙ্গে বিএনপির আসল নেতৃত্বের কোনো সম্পর্ক আছে কিনা। সংসদে যখন কথা বলেন, তখন মনে হয় আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিরাই কথা বলছেন।

সিটি নির্বাচন বিষয়ে নাসিম বলেন, ভোটবিহীন বাংলাদেশ হতে পারে না। ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কেন ভোট কম পড়েছে, তা সরকার ও দলকে উপলব্ধি করতে হবে।

ভোটাররা কেন ক্ষুব্ধ হয়েছেন, সেটা উপলব্ধি করার পরামর্শ দিয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘উপলব্ধি করতে হবে আমরা কেন ভোটবান্ধব থেকে সরে যাচ্ছি। সংসদ সদস্য হিসেবে আমাদের অবশ্যই মনে রাখতে হবে, ভোটার ছাড়া আমাদের উপায় নেই। ভোটবিহীন বাংলাদেশ হতে পারে না। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা যে এমপিরা আছি, সরকার ও দলকে উপলব্ধি করতে হবে, কী কারণে ঢাকায় এ ধরনের ঘটনা ঘটল। কেন কম ভোট পড়ল?’

নতুন সড়ক আইনের প্রয়োগ না হওয়ায় সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করেন নাসিম। তিনি বলেন, ‘অনেক আইন-নীতিমালা হয়েছে কিন্তু বাস্তবায়ন হচ্ছে না কেন? কাদের কারণে আমরা আইন প্রয়োগ করতে পারছি না? কোন ফ্রাঙ্কেস্টাইনের কারণে সড়ক আইনটি বাস্তবায়ন হচ্ছে না?’

নাসিম বলেন, ‘কেন ঋণখেলাপির কলঙ্ক আমরা বয়ে বেড়াচ্ছি। এটা নিয়ে যেন কারও অভিযোগ আমাদের শুনতে না হয়।’

নাসিম বলেন, নারী-শিশু নির্যাতন বন্ধে প্রধানমন্ত্রী অনেক কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছেন। অনেক বিধিবিধান করেছেন। তার পরও কী কারণে নারী-শিশু নির্যাতন বেড়েই চলছে।

নাসিম বলেন, প্রলম্বিত-বিলম্বিত বিচার কোনো দিনই মানুষকে স্বস্তি দিতে পারে না। আইন সংশোধন করে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের দ্রুত বিচার ও কঠোর সাজা দিতে হবে।

সংসদে বিএনপির সংসদ সদস্যদের বক্তব্যের জের ধরে নাসিম বলেন, ‘তাঁদের (বিএনপির সাংসদ) বক্তব্যে আমরা মাঝেমধ্যে বিস্মিত হয়ে যাই—তাঁরা বিএনপি করেন, নাকি অন্য দল করেন। এদের সঙ্গে বিএনপির আসল নেতৃত্বের কোনো সম্পর্ক আছে কি না, সন্দেহ হয়।

এখানে তাঁদের বক্তব্যে মনে হয় আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি হয়ে কথা বলছেন। এখানকার বক্তব্য স্বস্তিদায়ক আর বাইরে গেলে অন্য চেহারা। এরা আওয়ামী লীগের এজেন্ট হিসেবে কাজ করছেন কি না, সেই সন্দেহ হয়।’

নাসিম বলেন, ঢাকার মেয়রেরা যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, সেগুলো পালন করতে হবে। না হলে মানুষ দূরে সরে যাবে।

আমারসংবাদ/এমএআই