বৃহস্পতিবার ০৪ জুন ২০২০

২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ই-পেপার

বশির হোসেন খান

প্রিন্ট সংস্করণ

এপ্রিল ০৬,২০২০, ০৪:২৮

এপ্রিল ০৬,২০২০, ০৪:২৮

রাজধানীতে রাস্তায় বেরোলেই পুলিশের জেরা

করোনা ভাইরাসে দিন দিন বাড়ছে আতঙ্ক। স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করে হরহামেশাই ঘুরে বেড়াচ্ছেন রাজধানীবাসী। তাই তাদের ঘরমুখি করতে রাস্তায় নামলেই জেরা, গাড়িকে জরিমানা করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

২৬ মার্চ থেকে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত দেশে চলছে সাধারণ ছুটি। গতকাল রোববার থেকে নতুন করে কেউ ঢাকায় ঢুকতে কিংবা বের হওয়ার সুযোগ থাকছে না। সুনির্দিষ্ট কারণ ছাড়া কেউ বাসা থেকে রাস্তায় বের হলেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জেরার মুখোমুখি হতে হচ্ছে।

গতকাল রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার অলিগলিতে এমন চিত্র দেখা গেছে। বাড্ডা, গুলশান লিংকরোড, মালিবাগ, ফার্মগেট, মিরপুর, বিজয়নগর, পল্টন, খিলগাঁও, বাসাবো এলাকার প্রধান সড়কগুলোয় চেকপোস্ট বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

মোটরসাইকেল, প্রাইভেটকার কিংবা মাইক্রোবাস নিয়ে রাস্তায় নামলেই পুলিশকে কারণ বলতে হচ্ছে। কারণ না দেখাতে পারলেই চালকদের জরিমানার স্লিপ ধরিয়ে দিচ্ছে পুলিশ।

শাহবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল হাসান বলেন, ঘরে থাকুন নিরাপদে থাকুন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না। কারণ না দেখাতে পারলে জরিমানা করা হবে।

খিলগাঁও থানার ওসি মশিউর রহমান বলেন, করোনা যেন মহামারি রূপ না নিতে পারে, সেই লক্ষ্যেই মানুষকে বিনাপ্রয়োজনে রাস্তায় নামতে নিষেধ করা হয়েছে। কিন্তু মানুষ নিয়ম মানতে চায় না। তাই এখন আমাদের জেল-জরিমানার দিকে যেতে হতে পারে।

পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি মিডিয়া মো. সোহেল রানা বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ সারা দেশে করোনা বিস্তার রোধে কাজ করছে। পুলিশ নিশ্চিত করছে মানুষকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে।

তারা যেনো নিজ গৃহে অবস্থান করেন। প্রয়োজন ছাড়া কেউ যেনো ঘরের বাইরে না আসেন। বিশেষ করে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী জরুরি সেবার সাথে নিয়োজিত ব্যক্তিদের আমরা সহযোগিতা করছি।

এছাড়া সাধারণ মানুষ যেনো ঢাকা বাইরে বর্তমানে না যান। বাইরে থেকে সাধারণ মানুষ ঢাকায় যেনো প্রবেশ না করেন এই বিষয় নিশ্চিত করতে আইনশৃঙ্খলার বাহিনীর সকল ইউনিট কাজ করছে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী একার পক্ষে সম্ভব নয়। সবার সহযোগিতা চাই। করোনা রোধে আমরা আরও কঠোর হতে দ্বিধা করবো না। কেউ আবার রাস্তার পাশ ধরে হাঁটছেন। পুলিশি বাধা নানা অজুহাতে পার হয়ে যাচ্ছেন তারা।

তবুও ঘরের বাইরে যেন যেতে হবেই। রাস্তা দাবড়িয়ে বেড়াচ্ছে রিকশা, সিএনজি অটোরিকশা। অনেকে বিকেল হলেই রিকশায় ঘুরতে বেরিয়ে পড়ছেন। এতে করে ভয়াবহ রূপ নিতে পারে বাংলাদেশ।

নাগরিকদের ঘরমুখো করতে পুলিশকে তৎপর থাকতে দেখা যায়। কিন্তু তারপরও পুরোপুরি মানুষদের ঘরমুখো করা যাচ্ছিলো না। তাই করোনার বিস্তার ঠেকাতে কঠোরভাবে কাজ করছে সেনাবাহিনী।

ডিএমপি কমিশনার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, যৌক্তিক কারণ দেখাতে না পারলে বাইরে আসবেন না। বাসায় থাকুন। করোনা প্রতিরোধে সহযোগিতা করুন। নির্দেশ অমান্য করলে জেল-জরিমানা করা হবে।

আমারসংবাদ/এসটিএমএ