শনিবার ০৬ জুন ২০২০

২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ই-পেপার

বিনোদন প্রতিবেদক

এপ্রিল ৩০,২০২০, ১১:৩২

এপ্রিল ৩০,২০২০, ১১:৩২

না ফেরার দেশে ঋষি কাপুর

ইরফান খানের পর এবার ঋষি কাপুর। রূপোলি জগতের আরও এক নক্ষত্রের বিদায়! না ফেরার দেশে অভিনেতা ঋষি কাপুর। ৬৭ বছর বয়সে স্তব্ধ হয়ে গেল এক অধ্যায়ের।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) ফেসবুক স্ট্যাটাসে বিষয়টা জানিয়েছেন অমিতাভ বচ্চন। গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে বুধবার ভোরে তাকে মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বুধবার বলিউড হারিয়েছে শক্তিমান অভিনেতা ইরফান খানকে। এরপরদিনই এলো আরেক দুঃসংবাদ।

দীর্ঘদিন ধরেই ক্যানসারে ভুগছিলেন ঋষি। বিদেশে এক টানা চিকিৎসার পর গত বছর দেশে ফেরেন তিনি। কিন্তু মাঝেমধ্যেই সংক্রমণ বা শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। সংবাদসংস্থার খবর, বুধবার সকালে শ্বাসকষ্ট বাড়ায় এইচ এন এন রিলায়েন্স হাসপাতালে ফের ভর্তি করা হয় অভিনেতাকে। একের পর এক মৃত্যুর খবরে দিশাহারা চলচ্চিত্র জগৎ।

ঋষি কাপুর একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেতা প্রযোজক এবং পরিচালক যিনি হিন্দি চলচ্চিত্রে কাজের জন্য সুপরিচিত। ১৯৭০ সালে তার পিতার চলচ্চিত্র মেরা নাম জোকারে শিশু শিল্পী হিসেবে অভিনয়ে আত্মপ্রকাশ করে জাতীয় চলচ্চিত্রে পুরস্কার জিতে নেন।

এরপর ববি চলচ্চিত্রে ডিম্পল কাপাডিয়ার সাথে প্রথম প্রধান চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পান এবং ১৯৭৪ সালে ফিল্মফেয়ার শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৭৩ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত তিনি ৯২টি রোমান্টিক চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন যেখানে ৪১টি চলচ্চিত্রে সহ-তারকাদের সমন্বয় ছিল।

বাকি ৫১টি চলচ্চিত্রের মধ্যে মাত্র ১১টি চলচ্চিত্রে তিনি সফলতা পান। ১৯৭৩ থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত তার সহধর্মীনি নীতু সিংয়ের বিপরীতে মোট ১২টি চলচ্চিত্রে এক সাথে কাজ করেন।

আমারসংবাদ/কেএস