মঙ্গলবার ৩১ মার্চ ২০২০

১৬ চৈত্র ১৪২৬

ই-পেপার

বিনোদন প্রতিবেদক

মার্চ ১৪,২০২০, ০৩:৩০

মার্চ ১৪,২০২০, ০৪:৫৯

শাবনূরের দুই সতীনের নাম ফাঁস, গুরুতর অভিযোগ

বাংলাদেশের একসময়কার জনপ্রিয় নায়িকা শাবনূর। সম্প্রতি তার দুই সতীনের নাম গণমাধ্যমে এসেছে। তাদের নাম ফাঁস করেছেন শাবনূর নিজেই। জানিয়েছেন, এদেরকে অনিক (স্বামী) আমার বিয়ের আগে ও পরে বিয়ে করেছিলেন।

শাবনূর বলেন, অনিক একটি নয় আমি ছাড়াও আরও দুটি বিয়ে করেছিলেন। একটি আমাকে বিয়ের আগে, অন্যটি বিয়ের পর।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে অনিকের বিয়ে প্রসঙ্গে শাবনূর বলেন, ২০০৮ সালে ‘বধূ তুমি কার’ ছবিতে কাজ করতে গিয়ে অনিকের সঙ্গে প্রথম আমার পরিচয়। তখন থেকেই বিবাহিত ছিলো সে। নানা প্রলোভন ও ব্ল্যাকমেইল করে সে আমাকে বিয়ে করার আগে মৌরি ইসলাম মৌ নামে একটি মেয়েকে বিয়ে করেছিল। বিষয়টি আমি জেনে গেলে বিপদে পড়ার আশঙ্কায় মৌকে ভয় দেখিয়ে তালাক দেয় অনিক।

এরপর আমাকে বিয়ের পরও সে আয়েশা নামের আরেকটি মেয়েকে বিয়ে করেন। আয়েশা ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। এটা আমার মুখের কথা নয়। এ তথ্যের প্রমাণ দেবে অনিকের পাসপোর্ট।

ওই পাসপোর্টে তার স্ত্রী হিসেবে আয়েশার নাম রয়েছে, আমার নয়। কথা হলো কে এই আয়েশা? বিয়ে না করলে তার নাম অনিকের স্ত্রী হিসেবে পাসপোর্টে থাকে কী করে? এক স্ত্রী বর্তমান থাকতে আরেকটি বিয়ে কী বেআইনি ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ নয়?

তারপরও সন্তানের দিকে তাকিয়ে অনিককে আমি কিছু বলিনি। একজন নারী হিসেবে সব চেষ্টাই করেছি। কিন্তু অনিক সেটা হতে দেয়নি।

এদিকে স্বামীর সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় গত ২৬ জানুয়ারি অনিককে তালাক দেন শাবনূর। নায়িকার সই করা নোটিশটি অ্যাডভোকেট কাওসার আহমেদের মাধ্যমে গত ৪ ফেব্রুয়ারি অনিকের উত্তরা এবং গাজীপুরের বাসার ঠিকানায় পাঠানো হয়েছে।

শাবনূরের পাঠানো তালাক নোটিশের অনুলিপি তার স্বামী অনিকের এলাকার আইন ও সালিশ কেন্দ্রের চেয়ারম্যান এবং কাজি অফিস বরাবরও পাঠানো হয়েছে। এ তালাক নোটিশে সাক্ষী রয়েছেন মো. নুরুল ইসলাম ও শামীম আহম্মদ নামে দুজন। আইনগতভাবে ৯০ দিন পর তাদের এ তালাক কার্যকর হবে।

প্রসঙ্গত, সাত বছরের সংসার জীবনকে গত ২৬ জানুয়ারি তালাক নোটিশের মাধ্যমে বিদায় দিয়েছেন বাংলা চলচ্চিত্রের তুমুল জনপ্রিয় নায়িকা শাবনূর। তাদের বিচ্ছেদের পরেই সামনে আসতে থাকে নতুন সব তথ্য। তারই ধারাবাহিকতায় এবার জানা গেলো শাবনূরের প্রাক্তন স্বামী অনিক মাহমুদ শাবনূরসহ মোট তিনটি বিয়ের খবর।

তবে অভিনেত্রীর এমন বক্তব্যের পরে অনিক সব কথাকে মিথ্যা বলে দাবি করেন।

আমারসংবাদ/জেডআই