মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০

৩০ আষাঢ় ১৪২৭

ই-পেপার

শেখ সেকেন্দার আলী, মালয়েশিয়া থেকে

মে ১৬,২০২০, ০৩:০১

মে ১৬,২০২০, ০৩:০১

মালয়েশিয়ায় আতঙ্কে আছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা

মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের ধরতে নতুন কৌশলে ইমিগ্রেশন বিভাগ। পাইকারি কাঁচাবাজার থেকে  ১৪ শত বিদেশি অভিবাসীদের গ্রেপ্তারের পর এবার মালয়েশিয়ার প্রাণকেন্দ্র রাজধানী কুয়ালালামপুরের বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকায় পুডু প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে।

ইতিমধ্যেই ঐ এলাকায়  অবস্থান করা প্রবাসী বাংলাদেশীরা বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের আতঙ্কের কথা প্রকাশ করে বলেন, পুডু এলাকার ভবনগুলোতে লকডাউন করা হয়েছে। এছাড়াও সেদেশের পত্রিকায় ফলাও করে প্রকাশ করা হয়।

শুক্রবার (১৫ মে) এই ঘটনায় সেদেশের সিনিয়র মন্ত্রী (সিকিউরিটি) ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব সাংবাদিকদের বলেন, পুডু এলাকা প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে, সেখানে নিয়ন্ত্রণ আদেশ মুভমেন্ট কন্ট্রোল অডার (এমসিও) চলমান নয়।

এসময় তিনি আরো বলেন, সেখানে অবস্থানরতদের কভিড-১৯ পরীক্ষা করা হবে এবং যারা আক্রান্ত হবে তাদেরকে হাসপাতলে প্রেরণ করা হবে।

তিনি আরো যোগ করেন, সেখানে অবস্থান কারিরা এমসিওর আন্ডারে নয়়়, তাই তাদের চলাচলের কোন সমস্যা নেই। তবে আমাদের প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে পুডু এলাকা। এটি সত্য নয় (পুডু বর্ধিত এমসিওর অধীনে রয়েছে)। অঞ্চলটি কেবল প্রশাসনিক নিয়ন্ত্রণাধীন। "বাসিন্দাদের চলাফেরা করতে এবং খাবার গ্রহণের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

আমরা সবাইকে করোনা পরীক্ষা করবো। এদিকে একাধিক সূত্র জানিয়েছে, মুলত অবৈধভাবে অবস্থানরত অভিবাসীদের আটকের জন্য বিদেশি অভিবাসী অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে তল্লাশি করছে অভিবাসন বিভাগ।

এসময় বৈধ কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হলে তাদেরকে অভিবাসন আইনে গ্রেপ্তার দেখানো হচ্ছে। উল্লেখ্য গত ১১ মে রাজধানীর কুয়ালালামপুরের পাইকারি কাঁচাবাজার সেলাইয়াং থেকে প্রায় ১৪শত অবৈধ অভিবাসীদের গ্রেপ্তার করে সে দেশের অভিবাসন বিভাগ।

আমারসংবাদ/এমআর