শুক্রবার ১০ জুলাই ২০২০

২৬ আষাঢ় ১৪২৭

ই-পেপার

মুজাহিদ হোসেন, রাবি

মার্চ ১৭,২০২০, ১২:৫২

মার্চ ১৭,২০২০, ০১:০০

রাবি বন্ধ ঘোষণা, হল ছাড়ছে শিক্ষার্থীরা

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা হল ছাড়তে শুরু করছেন। মঙ্গলবার দুপুর থেকে তারা হল ছাড়া শুরু করেন।

এদিকে ভাইরাস সংক্রমের আশঙ্কায় মঙ্গলবার ( ১৭ মার্চ) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রম সহ আবাসিক হল ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়।  

রাবি জনসংযোগ কর্মকর্তা অধ্যাপক প্রভাষ কুমার কর্মকার জানান, সারা বিশ্বে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। ইতিমধ্যে বাংলাদেশেও পাঁচ জনের শরীরে শনাক্ত হয়েছে এই ভাইরাস।

তাই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষিত রাখতে আগামী ১৮ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধের ক্লাস পরীক্ষাসহ আবাসিক হল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কার্যক্রম চলবে। নির্দেশনা পাওয়ার পর মঙ্গলবার দুপুর থেকে ছাত্রছাত্রীরা হল ত্যাগ করতে শুরু করে।

এদিকে হল ছাড়ার নির্দেশনার বিষয়ে প্রাধ্যক্ষ পরিষদের আহবায়ক অধ্যাপক আব্দুল আলীম বলেন, বুধবার বিকাল ৪ টার মধ্যে সকল আবাসিক শিক্ষার্থীকে হল ছাড়তে হবে। আর ৩১ মার্চ যথারীতি ছুটি শেষ হলে সকাল ১০টায় সকল আবাসিক হলগুলো খুলে দেয়া হবে। করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কায় হল ছাড়ছেন আফরোজা নামের এক আবাসিক শিক্ষার্থী।

তিনি বলেন, হলে থাকলে যতটা পড়া হয় বাসায় গেলে ততটা পড়া সম্ভব হয় না। কিন্তু কী আর করা! জীবন তো বাঁচাতে হবে। তাই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নির্দেশ মোতাবেক হল ছাড়তে হচ্ছে।

এদিকে মাদারবখশ হলের আবাসিক শিক্ষার্থী মতুর্জা নুর বলেন, করোনা ভাইরাস আমাদের কাছে এখন আতঙ্কের নাম। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত ভালো উদ্যোগ। তবে এই ছুটি কতোদিনের হবে, সেটা জানি না।

শেষে কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে। আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে করোনা প্রতিরোধের ব্যবস্থা গ্রহণ করে শিক্ষাক্রম চালানো সম্ভব হলে ভালো হতো। বিশ্ববিদ্যালয় ছুটি হলেই আমরা নিরাপদ এমনটা নয়। বরং বিশ্ববিদ্যালয়টাকেই নিরাপদ তৈরি করার উদ্যোগ নিতে পারলে সঠিক কাজটি হতো।

জানা যায়, চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়ে বৈশ্বিক মহামারিতে রূপ নেয়া করোনা ভাইরাস বাংলাদেশে শনাক্ত হয়েছে গত ৮ মার্চ। সেদিন তিন জন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার তথ্য জানায় সরকারের আইইডিসিআর। পরে আরও দুজন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কথা জানায় সরকার। এদের মধ্যে তিনজন সুস্থ হয়ে উঠেছেন, যাদের দুজন বাড়ি ফিরে গেছেন।

উল্লেখ্য, বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছেই। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১৯৫টি দেশের মধ্যে ১৪১ টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৭ হাজার ১৭১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর আক্রান্ত হয়েছেন সংখ্যা ১ লাখ ৮২ হাজার ৭০০ জন।

আমারসংবাদ/এআই