শুক্রবার ২৯ মে ২০২০

১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ই-পেপার

ফুয়াদ মোহাম্মদ সবুজ, মহেশখালী

মে ১৭,২০২০, ০৯:২৪

মে ১৭,২০২০, ০৯:২৪

মহেশখালীর

বনবিভাগের ১০ হাজার চারাগাছ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা

উপকূলীয় বনবিভাগ চট্টগ্রামের আওয়াতধীন মহেশখালী উপজেলার কেরুনতলী বিটের অধীনস্থ বড় ছড়া চালিয়াতলী পাহাড়ে প্রায় ১০ হাজার গাছের চাড়া কর্রত করেছে দুর্বৃত্তরা।

রোববার (১৭ মে) ভোরে ঘটনাটি ঘটেছে সংগঠিত হয়েছে। এতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ১০ লাখ টাকা মত হবে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করেছেন বনবিভাগের লোকজন।

২০১৮-২০১৯ সালে দীর্ঘ মেয়াদী সুফল প্রকল্পের ৬৪ হাজার গাছের চারা রোপণের মধ্যে গর্জন, তৈলসুর, ঢাকিজাম, গামর, হরিতকি, বহারা, আমলকি দেশী জাম, চাপালি, চম্পাফুল, পুতিজাম ও মেহগনি গাছের চারা এর মধ্যে প্রায় ১০ হাজার চারা গাছ বাগান থেকে সংঘবদ্ধ ভূমিদস্যুরা কর্তন করে ফেলেছে।

স্থানীয়রা বলছেন, যারা চারা গাছ কেটে ফেলেছে তারা মানুষ হলেও জানোয়ারের মত কাজ করেছে। এ লোমহর্ষক ঘটনার চিত্র বড়ছড়া আশে পাশের এলাকার শত শত লোকজন দেখতে আসে এবং সকলের চোখে পানি ঝড়ছে, তারা সকলেই এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

উপজেলার হোয়ানক কেরুনতলী বিট কর্মকর্তা আহসানুল কবির বলেন, মাথার ঘাম পাঁয়ে পেলে চারা গাছগুলি বড় করতেছি। যাতে গাছগুলি পাহাড়ে রোপন করতে না পারি সে জন্য দখলবাজরা গাছগুলি কেটে ফেলেছে।  

মহেশখালী রেঞ্জের রেঞ্জ কর্মকর্তা  মোহাম্মদ সোলতানুল আলম চৌধুরী বলেন, দুর্বৃত্তরা চারা গাছ কর্তন করার বিষয়টি জানতে পেরে আমি সরেজমিনে গিয়ে পরির্দশন করেছি। চারা গাছ কাটার বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। ভূমিদস্যুরা পাহাড়ে গাছ সৃজন করতে না পারার জন্য গাছগুলি কর্তন করেছে। এব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আমারসংবাদ/এমআর