মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০

২৯ আষাঢ় ১৪২৭

ই-পেপার

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি

মে ১৪,২০২০, ১২:০৪

মে ১৪,২০২০, ১২:০৭

কেরানীগঞ্জে চিকিৎসকের অবহেলায় শিশুর মৃত্যু!

ঢাকার কেরানীগঞ্জে কলাতিয়া সেন্ট্রাল হাসপাতাল নামে একটি বেসরকারি হাসপাতালের নার্স-চিকিৎসকদের ‘অবহেলায় ও ভুল চিকিৎসায়’ ৪ দিনের এক শিশু সন্তানের মৃত্যুর অভিযোগ এনেছেন তার স্বজনরা।

জানা গেছে, গত শুক্রবার (৮ মে) সন্ধ্যা ৭ টার দিকে ডাঃ সেলির তত্বাবধানে সিজারের মাধ্যমে একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন নতুন চর খারাকান্দী গ্রামের মোঃ হানিফ মিয়ার স্ত্রী রেখা বেগম। ডাক্তার নার্স পর্যাপ্ত পরিমাণে না থাকলেও ভালই ছিলো মা ছেলে। কিন্তু জন্মের ৪র্থ দিন বাড়ি ফেরার আগমুহূর্তে হাসপাতাল থেকে জানানো হয় বাচ্চার অবস্থা ভালো না, তার জন্ডিস হয়েছে। যদিও এর মাঝে বলা হয়নি বাচ্চার জন্ডিস হয়েছে। তারপর তারা বাচ্চাটিকে মিটফোর্ড হাসপাতালে রেফার করে। বাচ্চাটিকে প্রথমে মিটফোর্ড পরে গ্রীন রোডের নিউ লাইফ হাসপাতালে নিলে সেখানে সে মারা যায়।

নবজাতক শিশুর চাচাত ভাই পুলিশ সার্জেন শাহাবুদ্দিন অভিযোগ করেন, গত ৫ মে শুক্রবার ৭টার দিকে আমার প্রসূতি চাচীকে কলাতিয়া সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভর্তি করি। সে দিনই সিজারের মাধ্যমে একটি ছেলে শিশুর জন্ম দেন তিনি। গতকাল ১২ মে মঙ্গলবার সকালে হঠাৎ নবজাতক ওই শিশু অসুস্থ হলে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ তাকে অন্যত্র নিয়ে যেতে বলে। তাকে প্রথমে মিটফোর্ড হাসপাতাল ও পরে নিউলাইফ হাসপালে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

এ ব্যপারে কলাতিয়া পুলিশ ফাঁড়ির মাধ্যমে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় একটি সাধারণ ডাইরির জন্য আবেদন করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, ক্লিনিকে কোনো শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক নেই। ফলে যথাযথ চিকিৎসা না হওয়ায় এ মৃত্যু হয়েছে। এ সময় তিনি একে হত্যা বলে দাবি করেন।

এ বিষয়ে কলাতিয়া সেন্ট্রাল হাসপাতালের এমডি ডাঃ দেলোয়ার হোসেন জানান, আমরা তাদের কে শিশুটিকে শিশু ডাক্তার দেখাতে বলেছি কিন্ত তারা দেখায়নি। তবে ভুক্তভোগীর দাবি শিশু ডাক্তার আসলেও আমাদের বাচ্চা ট্রিটমেন্ট করেনি। তারপরও এমডি ডাঃ দেলোয়ার হোসাইন বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলে জানান।

আমারসংবাদ/কেএস