মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০

২৯ আষাঢ় ১৪২৭

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

মার্চ ২৫,২০২০, ০৯:৫৮

মার্চ ২৫,২০২০, ০৯:৫৮

উৎসর্গ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ-এর হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ

 

নভেল করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী মহামারি আকার ধারণ করেছে। এই মহামারিতে সরকার ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের পাশাপাশি উৎসর্গ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশও উদ্যোগ নিয়েছে মানুষকে সহায়তা করার। সেই লক্ষ্যে বিনামূল্যে বিতরণের জন্য বিশেষজ্ঞ কেমিস্টের পরামর্শক্রমে ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ফর্মুলা অনুযায়ী প্রায় ১০,০০০ (দশহাজার) হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করেছে সংগঠনটির চেয়ারম্যান জনাব ইমরুল কায়েসের ব্যক্তিগত অর্থায়নে।

উৎসর্গ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ বুধবার (২৫ মার্চ) ঢাকা শিশু হাসপাতালে চিকিৎকসক ও রোগিদের সুরক্ষায় উক্ত হ্যান্ড স্যানিটাইজার সম্পূর্ণ বিনামূল্যে বিতরণ করেছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা শিশু হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক সৈয়েদ শফি আহম্মেদ, বাংলাদেশ আওয়ীলীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদ ডা. রোকেয়া সুলতানা। সংগঠনটির চেয়ারম্যান জনাব ইমরুল কায়েস বলেন, করোনা বিশ্বব্যাপী মহামারি আকার ধারণ করেছে।

এই সময় দেশবাসীসহ সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে। করোনা সচেতনতায় সবাইকে নিদিষ্ট দূরত্বে থাকার পাশাপাশি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। বাংলাদেশ সরকার করোনা প্রতিরোধে বিভিন্ন ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। প্রশাসনের পাশাপাশি সকল সচেতন নাগরিকের এই সংকটময় মূহুর্তে দেশবাসীর পাশে বিশেষ করে সমাজের দরিদ্র,দিনমজুর ও কমশিক্ষিত মানুষের পাশে সচেতনতার পাশাপাশি খাদ্য সামগ্রীসহ থাকা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব।

ঢাকা শিশু হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক সৈয়েদ শফি আহম্মেদ বলেন এই সময়ে সারাবিশ্বে করোনা ভাইরাসের কারনে চিকিৎসকরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন এদের সুরক্ষার জন্য এরকম একটি উদ্যোগ অবশ্যই প্রশংসনীয় তাই আমি উৎসর্গ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশকে সাধুবাদ জানাই। সমাজের সবাই যদি বিভিন্নভাবে এগিয়ে আসতেন তাহলে আমাদের জন্য এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করা সহজ হবে বলে আশাকবি।

বাংলাদেশ আওয়ীলীগের স্বাস্থ্য সম্পাদক বলেন, করোনাভাইরাসের সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা পেশাজীবী ও নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য বিশেষ গুরুত্ব দেয়া দরকার। সেই বিবেচনা থেকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদন ও বিতরণের কার্যক্রম নেয়ায় উৎসর্গ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশকে ধন্যবাদ দেয়ার পাশাপাশি সকলকে এরকম উদ্যোগ নেয়ার আহবান জানানোর পাশাপাশি আরো বলেন সংকটময় মুহূর্তে মানুষের মাঝে দাঁড়ানো আমাদের নৈতিক দায়িত্ব, আমরা আমাদের অবস্থান থেকে চেষ্টা করছি সমাজের নিম্ন আয়ের মানুষ, পথশিশু, বস্তিবাসীদের পাশে দাঁড়ানোর।

সংগঠনটির চেয়ারম্যান জনাব ইমরুল কায়েস আরো জানান আমরা ঢাকাসহ ৫৫ জেলায় আমাদের প্রায় ৩৫০০০ স্বেচ্ছাসেবক এর মাধ্যমে কয়েক হাজার মানুষকে সহযোগিতা করার চেষ্টা করছি। আমরা বিনামূল্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করছি।

উৎসর্গ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ একটি অরাজনৈতিক সেচ্ছাসেবীমূলক সংগঠন। সংগঠনটি বছরের বিভিন্ন সময় দেশের বিভিন্ন সংকটময় মুহূর্তে মানুষের পাশে বিগত ৪বছর যাবত স্বেচ্ছায় সেবা দিয়ে যাচ্ছে। এছাড়াও বিগত বছর গুলোতে বন্যা ও শীতের সময় সংকটপূর্ণ এলাকায় প্রয়োজনীয় উপকরণ সরবরাহ, ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং এবং স্বেচ্ছায় রক্তদান, মাধকবিরোধী সচেতনতা ক্যাম্প সেমিনার, বাল্যবিবাহরোধে সচেতনতা, পথশিশুদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা শিক্ষাসহ নানান সামাজিক কার্যক্রম পরিচালনা করেছে সংগঠনটি।

আমারসংবাদ/জেআই