মঙ্গলবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

১২ ফাল্গুন ১৪২৬

ই-পেপার

আমার সংবাদ ডেস্ক

ফেব্রুয়ারি ১৪,২০২০, ০৪:৫৯

ফেব্রুয়ারি ১৪,২০২০, ০৫:০১

পহেলা ফাল্গুন উদযাপিত

বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে আজ রাজধানীসহ সারাদেশে বসন্ত উৎসব (পহেলা ফাল্গুন) উদযাপিত হয়েছে।

দিনটি উদযাপনে ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বর্ণিল অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

এদিকে পহেলা ফাল্গুনের পাশাপাশি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস (১৪ ফেব্রুয়ারি) হওয়ায় তরুণ-তরুণীদের কাছে বসন্ত উৎসবের আমেজ নবতর রূপ লাভ করে।

এবছর বসন্তের শুরু ‘পহেলা ফাল্গুনকে’ বিভিন্ন উৎসব ও গান দিয়ে স্বাগত: জানানো হয়।

রাজধানীতে জনসাধারণ বসন্তের পোশাকে সজ্জিত হয়ে সকাল থেকে রাস্তায় রাস্তায় একে অপরের সঙ্গে আনন্দ বিনিময় করেছে।

পহেলা ফাল্গুন উপলক্ষে শুক্রবার বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি বসন্ত উৎসব-২০২০’র আয়োজন করে।

একাডেমির নন্দনমঞ্চে আয়োজিত উৎসবের শুরুতেই পরিবেশিত হয় জাতীয় সঙ্গীত।

এরপর দু’টি সমবেত সঙ্গীত ‘ফাগুন হাওয়ায় হাওয়ায়’ এবং ‘বসন্ত বাতাসে সইগো’- পরিবেশন করে শিল্পকলা একাডেমির প্রতিশ্রুতিশীল শিল্পীবৃন্দ।

এছাড়াও সমবেত সঙ্গীত পরিবেশন করে একাডেমির বাউল দল ও ভাওয়াইয়া দল।

এছাড়াও কবিরুল ইসলাম রতনের পরিচালনায় সমবেত নৃত্য পরিবেশন করে ‘নৃত্যালোক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র’ এবং দীপা খন্দকারের পরিচালনায় ‘দিব্য সাংস্কৃতিক সংগঠন’।

একক সঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পী নির্ঝর চৌধুরী ও স্মরণ। একক আবৃত্তি পরিবেশন করেন শিল্পী রূপা চক্রবর্তী ও শিমুল মোস্তফা। সবশেষে ছিল জনপ্রিয় ব্যান্ড দল ‘কৃষ্ণকলি’র পরিবেশনা।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও নেচে-গেয়ে ঋতুরাজ বসন্তকে বরণ করে নেয় । খোঁপায় ফুল, গলায় মালা আর রঙিন শাড়ি পরে ছাত্রীরা ক্যাম্পাসে আনন্দ-উৎসবে মেতে ওঠে। সেই সঙ্গে চলে ঢোল-তবলায় বাঙালিয়ানা সংস্কৃতির নানা পরিবেশনা।

লাল-হলুদ পাঞ্জাবির সাজে পুরো ক্যাম্পাস বসন্ত উৎসবের ভিন্ন রং খুঁজে পায়। গ্রাম বাঙলার ঐতিহ্যে নাচে গানে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে শিক্ষার্থীরা।

এছাড়াও দিনটি উদযাপনে বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজেও বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আমারসংবাদ/এসটিএমএ